টিকটিকি নিরাময়ের জন্য কিছু ঘরোয়া টোটকা

how to remove lizards from home

হঠাৎ দেওয়াল থেকে গায়ে লাফিয়ে এসে পড়ার ঘটনা প্রায় সবার সাথেই ঘটেছে। অতর্কিতে টিকটিকির এরকম আচরণে মুখ থেকে বিকট চিৎকার বের হয়না এমন মানুষ বোধহয় নেই।

টিকটিকি খুবই নিরীহ একটি প্রাণী। দেওয়ালে ঘুরে বেড়ানো এই সরীসৃপ কে দেখলে কেউ কেউ তার ত্রিসীমানায় থাকে না। হঠাৎ দেওয়াল থেকে গায়ে লাফিয়ে এসে পড়ার ঘটনা প্রায় সবার সাথেই ঘটেছে। অতর্কিতে টিকটিকির এরকম আচরণে মুখ থেকে বিকট চিৎকার বের হয়না এমন মানুষ বোধহয় নেই।

টিকটিকি গায়ে পড়াকে মানুষজন বিভিন্ন ভাবে ব্যাখ্যা করেন। শুভ বলেও মানেন কেউ কেউ। শরীরের বিভিন্ন স্থানে টিকটিকি পড়লে বিভিন্ন রকমের প্রভাব পড়ে মনুষ্য জীবনে এরকমই প্রবাদ চালু আছে। তবে আসল করণ হলো দেওয়াল বা ঘরের কার্নিশে টিকটিকি নিজের ভারসাম্য হারিয়ে ফেললে তখনি নিচে পড়ে যায়। কেউ তার আশেপাশে থাকলে সেই সময় তার গায়ে এসে পড়ে। তবে টিকটিকি গায়ে পড়লে রোগ জীবাণুর আশঙ্কা এড়িয়ে যাওয়া যায় না একেবারেই।

টিকটিকি নিরাময়ের জন্য রইলো কিছু ঘরোয়া টোটকা

তামাক কে পেস্ট করে ছোট ছোট বল বানিয়ে কাঠিতে গেথে যে যে স্থানে টিকটিকির হানা বেশী, সেখানে রেখে দিলেও ভ্যানিশ হয়ে যাবে এই সরীসৃপ।

পিয়াজ, রসুন এর গন্ধ টিকটিকর একদম নাপাসান্দ। তাই এগুলি ঘরের আনাচে কানাচে রেখে দিলে টিকটিকি থেকে মুক্তি।

ন্যাপথলিন এর উগ্র গন্ধে টিকটিকি পালিয়ে যায়, তাই ঘরের যে সমস্ত জায়গায় টিকটিকির উপদ্রব সেখানে রেখে দিলেও টিকটিকি আর ঘরে আসবে না।

জল ভর্তি বোতলে গোলমরিচ আর শুকনো লংকার গুঁড়ো মিশিয়ে দেওয়ালে যে সব জায়গায় টিকটিকি ঘুরে বেড়ায় সেখানে স্প্রে করে দিলেও টিকটিকি আসা বন্ধ হবে।

ডিমের খসার গন্ধ টিকটিকি সহ্য করতে পারেনা। যদি ডিমের খোসা বিভিন্ন জায়গায় রাখতে পারেন তবে টিকটিক পালিয়ে যাবে।

জীবাণুনাশক ফিনাইল দিয়ে রোজ ঘর পরিষ্কার করুন। ফিনাইলের গন্ধে টিকটিকরা দূরে থাকবে।

বাড়িতে ময়ূরের পালক রেখে দিলে টিকটিকি আসেনা। তাই ফুলের তবে সাজিয়ে রাখতে পারেন ময়ূরের পালক।

টিকটিকির দূরীকরণে এই টোটকা গুলো ভীষণই কার্যকর। এপ্লাই করলেই হাতেনাতে ফল।

follow khobor dobor on google news
Anol A Modak
Author: Anol A Modak

Film Maker, Writer, Astrologer, Vastu Consultant, Hypnotherapist, Entreprenuer

আরো পড়ুন