Wednesday, November 30, 2022
Homeগল্প ও উপন্যাসইংলিশ মিডিয়াম ও বাংলা মাধ্যম স্কুলের আত্মকথা -- অলিভিয়া দে মোদক

ইংলিশ মিডিয়াম ও বাংলা মাধ্যম স্কুলের আত্মকথা — অলিভিয়া দে মোদক

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল : আমাদের নিয়ে এখন কত আলোচনা, ফেসবুক লাইভ আর লেখালেখির ঢল নেমেছে মানুষের মধ্যে…….

বাংলা মাধ্যম স্কুল : যা বলেছ, যদিও এগুলোর কোনো প্রয়োজনই নেই. আমাদের সাক্ষ্য আমরা নিজেরাই রাখতে পারি. জোর করে এই তফাৎ এর সত্যি কি কোনো প্রয়োজন আছে ? উঁচু-নিচু, ছোট-বড় সবার ঊর্ধ্বে আমরা।

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল: এই যে পাশাপাশি একই জায়গায় আমরা বাস করি বছরের-পর-বছর কই আমাদের নিজেদের মধ্যে তো কোন কমপ্লেক্স বা কমপ্লেন নেই। তাহলে ওদের এত অহংকার এর কারণ কি এত শিক্ষিত হয়েও বুঝলাম না ..

বাংলা মাধ্যম স্কুল : সেই প্রথম আসা দিন থেকে চলে যাবার দিন অব্দি তুমি আমি দুজনেই ওদের চোখের জলের সাথে থাকি, আর বাদ বাকি দিনগুলো বিভিন্ন অভিজ্ঞতা আনন্দ হুল্লোড় আরো কত কিছু। বলতে গেলে আমরাই বন্ধুত্ব জন্মদি। একজনকে একশো জনের কাছে আনি। অরোরা মূর্খের মতো আমাদের পৃথক করছে তাও আবার ভাষার দোহাই দিয়ে।

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল: ওরা ভাবে আমরা কংক্রিট বছরের পর বছর হাজার হাজার শিশুদের কৈশোরের গণ্ডি পেরোতে দেখলাম এখনো যখন প্রাক্তন, প্রাক্তনীরা সরস্বতী পুজোয় আমাদের সাথে দেখা করতে আসে, যতই বড় হয়ে যাক চিনতে একটু অসুবিধা হয়না আর ওরা যখন আমাদের গায়ে হাত রাখে মনে হয় ওরা জিজ্ঞেস করছে……. কেমন আছো আমার স্কুল?

বাংলা মাধ্যম স্কুল: একদমই তাই, মাধ্যম আলাদা হতে পারে, পড়াশোনা করানোর ভাষা আলাদা হতে পারে, তবে আমাদের ফিলিংসটা তো একইরকম ওদের জন্য।

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল: সবাই এখন লিখছে বলছে “আমরা গর্বিত আমরা বাংলা মিডিয়ামে পড়েছি” কেউ কেউ আবার খুঁত ধরে বলছে বাংলা হলে মিডিয়া কি করে হয়? মাধ্যম বলা উচিত। বড্ড হাসি পেল, যখন ওরা নিজেদের মধ্যে যুদ্ধ বাঁধালো এটা বলে…. তোমার যোগ্যতা বড়ই কম আমার থেকে! ওরা কি সত্যিই ভুলে গেছে আমরা গর্বে না মানুষ তৈরিতে বিশ্বাসী।

বাংলা মাধ্যম স্কুল: বছর 25 – 30 আগে আমার থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে আজ শিক্ষক বা শিক্ষিকা হয়েছে তোমার কাছে গিয়ে শিক্ষাদান করছে নিদর্শন তো কম নয় বলো! তবুও যুদ্ধে নামতেই হবে আমাদের কেন্দ্র করে সে অজুহাত নিয়ে হলেও সই। ভালো জায়গায় চাকরি পেতে হলে আমি ভরসার অযোগ্য এটাই তাদের প্রধান বক্তব্য। আবার আমার ভাষা শেখাবে বলে কেউ কেউ বিদেশ পাড়ি দিচ্ছে চাকরি নিয়ে।

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল : আসলে ওদের কিছু জনের একটা ভ্রান্ত ধারণা আছে তোমার থেকে শিক্ষা পেলে ঠিক যোগ্য হওয়া হয় না, আজকের তারিখে দাঁড়িয়ে। ওরা বলছে তোমাকে জানলে আমাকে জানাটা অসম্পূর্ণ থেকে যায়। ওরা ভাষার লড়াই করতে গিয়ে আমাদেরকে প্রতিযোগিতা দাঁড় করাচ্ছে।

বাংলা মাধ্যম স্কুল: কি আশ্চর্য ভাবে শিক্ষা আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে শিক্ষার্থীরাই মুখোমুখি সৈনদল বানাচ্ছে। ভাবা যায়….

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল: ইন্টারভিউ ক্রাক করতে হলে শুধু ভাষার দক্ষতা ও অস্ত্র হতে পারে এটাই ওদের ধারণা। ইংরেজিতে অনর্গল বলছে কিন্তু যেখানে চাকরি করতে যাচ্ছে সে সম্বন্ধে বা বিষয়ে একফোঁটাও জ্ঞান নেই। আমাদের প্রশ্ন ওদের কাছে…..তাহলে কি সত্যি সে চাকরিটা পাওয়া যায়? সাধারণ বিষয় গুলো ভুলতে শুরু করে দিয়েছে ওরা, এটাও ভুলে গেছে ইচ্ছা থাকলেই একটা কেন অনেক ভাষা শেখা যায় একসাথে।

বাংলা মাধ্যম স্কুল : আলবাত তাইতো তুমি আমি দুজনেই মাথা তুলে সেদিনও দাঁড়িয়ে ছিলাম, আজও আছি, আগামী দিনেও থাকবে আমাদের আত্মবিশ্বাস নিয়ে আর শিক্ষা বিতরণ করবো সবার মধ্যে, সমান ভাবে।

follow khobor dobor on google news
Anol A Modak
Author: Anol A Modak

Film Maker, Writer, Astrologer, Vastu Consultant, Hypnotherapist, Entreprenuer

Most Popular

Recent Comments

%d bloggers like this: