জামাইষষ্ঠীর রেশ এখনও কাটেনি, আজ রেঁধে ফেলুন আম-কাসুন্দির কাতলা

Khobordobor

ক্যালেন্ডারের হিসাব অনুযায়ী জামাইষষ্ঠী একদিন থাকলেও বাস্তবে তার রেশ কিন্তু পরের দিন পর্যন্তও থাকে। তাই জামাইদের জন্যে একই ভূরিভোজ জারি থাকে দিন দু’এক পর্যন্ত। তাছাড়া বর্তমানে বিভিন্ন নিয়মকানুন, রীতিনীতি ছাড়াও জামাইষষ্ঠীর প্রধান চমক হল খাওয়া-দাওয়া। আদরের জামাইকে নিজের হাতে পঞ্চব্যঞ্জন রেঁধে খাওয়ানোর সুযোগ হাত ছাড়া করতে নারাজ শাশুড়িরা। তাই জামাইকে একটু অন্যরকম স্বাদ দিতে রেঁধে ফেলুন আম-কাসুন্দির কাতলা।
আম-কাসুন্দির কাতলাউপকরণ:
টুকরো কাঁচা আম এক কাপ, কাতলা মাছ পাঁচ টুকরো, কালো জিরে আধ চা চামচ, হলুদ গুঁড়ো এক টেবিল চামচ, গোটা জিরে আধ চা চামচ, শুকনো লঙ্কা দু’টি, কাঁচা লঙ্কা তিনটি, কাসুন্দি এক টেবিল চামচ, নুন স্বাদ মতন, চিনি আধ চা চামচ, সর্ষের তেল প্রয়োজন মতো।
আম-কাসুন্দির কাতলাপ্রণালী:
মাছগুলিকে ধুয়ে নুন হলুদ মাখিয়ে ডোবা তেলে ভেজে তুলে রাখুন।
এরপর কড়াইয়ে তেল গরম করে কালো জিরে, গোটা জিরে, শুকনো লঙ্কা ফোড়ন দিয়ে সামান্য হলুদ গুঁড়ো, চেরা কাঁচা লঙ্কা আর কাঁচা আমের টুকরো দিয়ে নাড়তে থাকুন। আম ভাজা ভাজা হয়ে এলে এরমধ্যে নুন, চিনি আর দু’কাপ জল দিন। কিছুক্ষণ ফুটতে দিন। মশলা ঝোলের সঙ্গে ভালভাবে ফুটে গেলে তাতে ভাজা মাছের টুকরোগুলি দিয়ে সামান্য কাসুন্দি ছড়িয়ে দিন। আবার মিনিট দশ ফাটানো পর নামিয়ে নিন। এরপর ঝোল গা মাখা হয়ে এলে নামিয়ে জামাইয়ের পাতে গরম গরম পরিবেশন করুন আম-কাসুন্দির কাতলা।

Facebook
WhatsApp
Twitter
LinkedIn
Telegram
Email
Pinterest
Twitter