Sunday, June 26, 2022
Homeলাইফ স্টাইলবিউটি টিপসতুলতুলে গাল আর চকচকে চুলের জন্য কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলার কামাল জেনে নিন

তুলতুলে গাল আর চকচকে চুলের জন্য কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলার কামাল জেনে নিন

ভ্যানিলা মানেই যে শুধূ স্বাদকোরকে নিশ্চিত করে জিভে জল আনে তা কিন্ত নয়। ভ্যানিলার নির্যাসের মিষ্টি, উষ্ণ সুবাস মনকে শান্ত করে একথা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু অনেকেই জানেন না যে ত্বক এবং চুলের যত্নেও ভ্যানিলার গুরুত্ব অপরিসীম। ভ্যানিলার নির্যাস অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফেনোলিক যৌগ ভ্যানিলিন সমৃদ্ধ যা ত্বকের ক্ষতি রোধ করে। এছাড়াও বিভিন্ন ভিটামিন, বিশেষ করে নিয়াসিন, থায়ামিন, রাইবোফ্লাভিন, ভিটামিন বি৬ এবং প্যান্টোথেনিক অ্যাসিডে ভরপুর ভ্যানিলা ত্বকের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে।
ভ্যানিলার মেক্সিকোয়। এর কুঁড়ি মূলত অর্কিড বা ভ্যানিলা প্ল্যানিফোলিয়া থেকে এসেছে। প্রথমে কোকো জাতীয় পানীয়ের সঙ্গে ভ্যানিলা মিশিয়ে তৈরি করা হত অপূর্ব স্বাদের পানীয়। পরে স্প্যানিশরা এটি ইউরোপে নিয়ে আসে। ভারতের কুর্গ অঞ্চলে ভ্যানিলা পাওয়া যায়।

Khobordobor
তুলতুলে গাল আর চকচকে চুলের জন্য কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলার কামাল জেনে নিন

বহু প্রাচীনকাল থেকেই কিন্তু রূপচর্চায় ব্যবহার করা হয় ভ্যানিলা বীজ। যা অনেকেরই অজানা। ক্রিম, তেল, ময়েশ্চারাইজার সবই এখন তৈরি হচ্ছে ভ্যানিলার নির্যাস থেকে। শীতের দিনে এই ভ্যানিলা অয়েল যেকোনও ধরণের ত্বকের জন্যই উপকারী।

ত্বক ও চুলের যত্নে ভ্যানিলা-শ্যাম্পু বা লোশনে কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলা যোগ করলে তা ত্বকের পক্ষে দারুণ উপকারী। যাঁরা ব্রনর সমস্যায় ভুগছেন তাঁরা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ ভ্যানিলা যোগ করতে পারেন তাঁদের অ্যাকনে-বিরোধী পণ্যে। এতে ব্রনর ব্রেকআউট, লালভাব ও জ্বালা কম হয়। এছাড়া যেখানে যেখানে ব্রন হয়েছে সেখানে কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলা লাগিয়ে সারা রাত রেখে দিন। এরপর সকালে ধুয়ে ফেললে ব্রন পরিষ্কার হবে। এটি ত্বকের বলিরেখা কম করতে এবং ত্বক মসৃণ রাখতে সাহায্য করে। বার্ধক্য আটকে দেয় ভ্যানিলা।

আরগান তেলের মতো হালকা কোনও তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলা মিশিয়ে ফেস অয়েল তৈরি করে নিন। প্রতিদিন এই তেল ব্যবহার করলে ক্ষতিগ্রস্ত ত্বকের মেরামতি হয় এবং ত্বকে লাবণ্য ফিরে আসে। ভ্যানিলায় রয়েছে ভিটামিন-বি। যা ত্বক সুস্থ রাখে।

Khobordobor
তুলতুলে গাল আর চকচকে চুলের জন্য কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলার কামাল জেনে নিন

কীভাবে ব্যবহার করতে হবে:
৫ থেকে ৬ ফোঁটা ভ্যানিলা নিয়ে ব্রাউন সুগার বা চালের গুঁড়োর সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এরপর এতে ২ ফোঁটা ভ্যানিলা এসেনসিয়াল অয়েল এবং লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করা মুখে লাগাতে হবে। কয়েক মিনিট মাসাজ করে প্রথমে গরম জল দিয়ে ধুতে হবে। তার পরে ত্বককে টোন করতে ঠান্ডা জলের ঝাপটা দিতে হবে। রাতারাতি ম্যাজিকের মত উপকার পাবেন।
ভ্যানিলা শুষ্ক, রুক্ষ চুলকে ঝলমলে আর স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।
কীভাবে ব্যবহার করতে হবে:
এক কাপ নারকেল দুধে ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা ভ্যানিলা এসেনসিয়াল অয়েল মিশিয়ে চুল এবং স্ক্যাল্পে ১৫ মিনিট মাসাজ করুন। তার পর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিতে হবে। চুল হবে একেবারে ফুরফুরে।

diginext
Author: diginext

LEAVE A REPLY



Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments